On
ব্লগে পোস্ট লেখার সময় কয়েকটি বিষয় আপনাকে মেনে চলতে হবে, তাহলেই আপনার পোস্ট টি গুগলে রেঙ্ক করবে এবং তার সাথে সাথে আপনার ভিসিটর দেরও বুজতে সুভিধা হবে।

ব্লগে পোস্ট করার কিছু বেসিক BASIC নিয়ম 

হেডিং Heading এর ব্যবহার করা
সাব হেডিং Sub Heading ব্যবহার করা
বোল্ড Blod ব্যবহার করা
কালার Colour ব্যবহার করা
ইমেজ Imege ব্যাবহার করা
ইমেজ অপ্টিমাইজ Image Optimize করা
সার্চ ডেসক্রিপশন Search Description ব্যবহার করা
কাস্টম পারমালিঙ্ক Custom Permalink ব্যবহার করা

এখন এই সকল বেসিক নিয়ম নিয়ে বিস্তারিত কথা বলবো 


হেডিং / Heading
হেডিং এর ব্যবহার করা টা খুবই গুরুত্বপূর্ণ, কেননা আপনি হেডিং ব্যবহার করলে আপনার ভিজিটর দের বুজতে ও প্রবলেম হবে না এবং তার সাথে গুগলের এর ও বুজতে প্রবলেম হবে না যে আপনি কি বা কোন বিষয়ের উপর পোস্ট টি লেখেছেন, অনেক সময় এমন টা হয় আপনি লেখেছেন বকের ঠ্যাং আর আপনার পোস্ট টি রেঙ্ক করেছে কারের ঠ্যাং। সঠিক ভাবে হেডিং এর ব্যবহার করলে আপনার পোস্ট টি ঠিক মতো রেঙ্ক করবে, টা ছাড়া বড় প্লাস পয়েন্ট হোল আপনি যে বিষয় এর উপর পোস্ট টি করবেন সেই বিষয়ের উপরই আপনার লেখা পোস্ট টি রেঙ্ক করবে। মোড়াল কথা পোস্ট করার সময় হেডিং এর ব্যবহার অবশ্যই করা উচিৎ ।

সাব হেডিং / Sub Heading

সাব হেডিং ব্যবহার করার ফলে আপনার পোস্ট টি দেখতে এবং পরতে বা বুজতে খুবই ভালো হবে, এই জন্যই আপনার সাব হেডিং করা উচিৎ, দেখুন আপনি অনেক বড় একটি পোস্ট লেখলেন আমি ধরে নিলাম যে আপনি যে পোস্ট টি করছেন সেই পোস্ট টি ২০০০ ওয়ার্ড এর কিন্তু আপনি আপনার অই কাংখিত পোস্ট টিতে হেডিং বা সাব হেডিং এর ব্যবহার করেন নি, তার ফলে কি হবে জানেন আপনার ওই পোস্ট টি যখন রেঙ্ক করবে এবং আপনার ওই পোস্ট টি ভিজিটর টা পড়বে, অনেকে বুজতে পারবেনা এবং অনেকে বুজলেও আপনার এরকম এক ভাবে লেখার জন্য আপনার পোস্ট টি কেতে দিয়ে চলে যাবে, এ জন্যই  পোস্ট করার সময় সাব হেডিং এর ব্যবহার করা উচিৎ ।

বোল্ড / Blod এর ব্যবহার

মনে করুন আপনি আপনার পোস্ট এর ভিতর কোন গুরুত্বপূর্ণ একটি ওয়ার্ড লিখলেন এবং সেই ওয়ার্ড টি আপনি হাইলাইট করে দিতে চান আপনার পোস্ট এর ভিতর, যেমন আমি এখেনে হাইলাইট ওয়ার্ড টি বোল্ড করে দিয়েছি । আর এভাবেই আপনি যদি আপনার পোস্ট এর ভিতর কোন গুরুত্বপূর্ণ ওয়ার্ড হাইলাইট করতে চান তাহলে বোল্ড এর ব্যবহার করুন । এবং তার ফলে আপনার ভিজিতর ও আপনার পোস্ট টি ভালো ভাবে পরতে বা বুজতে পারবে ।

কালার / Colour এর ব্যবহার

কালার এর ব্যবহার আপনাকে যে করতেই হবে এমন টা নয়, তবে যদি আপনি কালার এর ব্যবহার করেন তাহলে এটা হবে যে আপনার পোস্ট টি দেখতে অনেক টা সুন্দর লাগবে। এই ছাড়া কালার এর বিশেষ কোন কাজ নেই ।

ইমেজ / Imege ব্যাবহার

ইমেজ এর ব্যাবহার করা খুব খুব দরকারি ব্লগে পোস্ট করার সময়, কেননা আপনি যে বিষয় টি বলছেন সেই বিষয় টি তো আর আপনি সামনা সামনি ইউটিউব এর মতো ভিডিও এর মাধ্যমে বলছেন না, আপনি আপনার কথা গুলি লেখে বলছেন তো অনেক সময় এমন টা হতেই পারে যে আপনার ভিজিটর আপনার বলা কথা গুলি বুজতে পারছে না, এই জন্যই আপনার পোস্টে ইমেজ ব্যাবহার করা টা খুবই দরকার, আর একটা কথা ইমেজ ব্যাবহার করা দরকার তার মানে এটা নয় যে আপনি একটি পোস্ট টে অনেক অনেক গুলা ইমেজ ব্যাবহার করবেন, আপনি যদি এমন টা করেন তাহলে গুগল আপনার পোস্ট ইনডেক্স করবেনা। কারন আপনি যদি সব কিছুই ইমেজ দিয়ে বুঝান তাহলে ব্লগিং কেন করবেন আপনি ইউটিউব করুন । গুগল এর ভাষ্যমতে আপনি একটি পোস্ট টে বড়জোর ২ টি ইমেজ ব্যাবহার করতে পারবেন, আর যদি প্রয়োজন বসতো এক্সট্রা ইমেজ এড করা প্রয়োজন পড়ে তাহলে ব্যাবহার করতে পারেন ।

ইমেজ অপ্টিমাইজ / Image Optimize

আপনার ব্লগের পোস্টে ইমেজ এড করার পড়ে ইমেজ অপ্টিমাইজ করা টা খুই জরুরি কেননা আপনি যদি ইমেজ অপ্টিমাইজ না করেন তাহলে গুগল বা আপনার ভিজিটর দের বুজতে প্রবলেম হতে পারে যে এই ইমেজ টা আসলে কি রিলেটেড, এই জন্যই ইমেজ অপ্টিমাইজ করা টা অতান্ত জরুরি। ইমেজ অপ্টিমাইজ  কীভাবে করবেন ? আপনি যে ইমেজ টি ব্যাবহার করবেন সেই ইমেজ টি রিনেম করে আপনার পোস্ট এর টাইটেল টা এড করে দিবেন, এবং ALT টেক্সট এড করবেন। আর এভাবেই ইমেজ অপ্টিমাইজ করবেন ।

সার্চ ডেসক্রিপশন / Search Description 

সার্চ ডেসক্রিপশন এর ব্যাবহার করাটা অতান্ত দরকারি, সার্চ ডেসক্রিপশন এর ব্যাবহার করা মানে যখন কেই আপনার পোস্ট টি গুগল দেখবে তখন নিচে অল্প করে আপনার পোস্ট এর বিষয়ে লেখা থাকবে এবং তাঁতে করে আপনার ভিজিটর বুজতে পারবে যে এই পোস্ট টি আসলে কোন টপিক এর উপর ।



কাস্টম পারমালিঙ্ক / Custom Permalink 

মনে করুন আপনি আপনার ব্লগে একটি পোস্ট করলেন এবং আপনার পোস্ট টির লিংক হোল এমন 
( apnarsite.info/2019/03/post_27.html ) এটা কি হোল এটা কিন্তু ইউজার ফ্রেডলি পারমালিঙ্ক হোল না, এই জন্যই আপনাকে ইউজার ফ্রেডলি কাস্টম পারমালিঙ্ক ব্যাবহার করতে হবে যেমন আপনার পোস্ট এর টাইটেল হোল (How to write a blog post) তাহলে আপনার এই পোস্ট এর কাস্টম পারমালিঙ্ক হবে এমন টা ( apnarsite.info/how-to-write-a-blog-post.html ) । 


তো এভাবেই আপনি কাস্টম পারমালিঙ্ক এড করবেন আপনার ব্লগ পোস্টে । 

Click to comment